শিক্ষকমান কী? শিক্ষক মান কয়টি ও কী কী? - Proshikkhon

শিক্ষকমান কী? শিক্ষক মান কয়টি ও কী কী?

Teachers Standard and its types

শিক্ষকমান কী?

শিক্ষকমান হলো শিক্ষকদের পেশাগত পারদর্শিতা মূল্যায়নের জন্য নির্ধারিত কিছু আদর্শ (Standard) এর সমন্বয়, যার মাধ্যমে শিক্ষকতা পেশার নির্দিষ্ট ক্ষেত্রগুলোতে শিক্ষকদের পারদর্শিতার অবস্থা যাচাই করা হয়। শিক্ষক তার আত্মমূল্যায়নের মাধ্যমে পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য নিরন্তর প্রচেষ্টা চালাবেন। এজন্য শিক্ষক নিজ থেকে যেমন সচেষ্ট থাকবেন, তেমনি শিক্ষকের সেই চেষ্টা কতটুকু ফলপ্রসূ তা যাচাইয়ের জন্য শিক্ষকমান মূল্যায়ন করা প্রয়োজন। সাধারণত শিক্ষা ব্যবস্থাপনায় নিয়োজিত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তত্ত্বাবধান, পরিবীক্ষণ বা মূল্যায়ন প্রতিবেদনের মাধ্যমে এক ধরনের মূল্যায়নের কাজ করে থাকে। কখনো কখনো বিদ্যালয় শিক্ষকদের পারদর্শিতা মূল্যায়ন করে। মূলত মূল্যায়নের মাধ্যমে শিক্ষকের অর্জন ব্যবধান ও দুর্বলতা ধরা পড়ে এবং শিক্ষক তা অর্জনে সচেষ্ট হন।

শিক্ষক যোগ্যতার সাথে শিক্ষকমানের নিবিঢ় সম্পর্ক রয়েছে। ডিপিএড শিক্ষাক্রমে ২৩টি শিক্ষকমান সম্পর্কে বলা হয়েছে। এই শিক্ষকমানগুলো প্রধান তিনটি ক্ষেত্রে ভাগ করা হয়েছে। যেমন: পেশাগত জ্ঞান ও উপলব্ধি, পেশাগত অনুশীলন এবং পেশাগত মূল্যবোধ ও সম্পর্কস্থাপন। প্রত্যেকটি প্রধান ক্ষেত্রকে কয়েকটি শিখন ক্ষেত্রে ভাগ করে তার আলোকে শিক্ষকমানগুলোকে বিন্যস্ত করা হয়েছে। ডিপিএড প্রোগ্রামে ১ম-৪র্থ টার্মের সময়ে শিক্ষার্থীদের শিক্ষকমান (Teacher Standard) মূল্যায়ন করা হয়।

এক্ষেত্রে শিক্ষকমান মূল্যায়ন করা হয় প্রমাণপত্রের মাধ্যমে। সকল শিক্ষার্থীকে ২৩টি শিক্ষকমানেই ৮০% বা তদুর্ধ্ব নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। প্রথম থেকে তৃতীয় টার্ম পর্যন্ত শিক্ষার্থীর যোগ্যতা অর্জন যাচাই করার জন্য অনানুষ্ঠানিক ও আনুষ্ঠানিক প্রমান সংগ্রহ করা হয়। এই প্রমানের ভিত্তিতে নির্ধারিত ছকে শিক্ষার্থীকে যোগ্যতাভিত্তিক গ্রেড প্রদান করা হয়ে থাকে।

শিক্ষক মান (Standards) ২৩টি (=৬+১৩+৪)

ক) পেশাগত জ্ঞান এবং উপলব্ধি (Professional Knowledge and Understanding)

১. প্রাক-প্রাথমিক এবং প্রাথমিক শিক্ষার সকল বিষয়ে শিক্ষাদানের জন্য প্রয়োজনীয় বিষয়ভিত্তিক জ্ঞান ও ধারণা প্রদর্শন করতে পারেন।

২. শিক্ষাক্রমের যোগ্যতা এবং শিখন ফল ও শিক্ষার্থীদের জন্য যথাযথ বিভিন্ন প্রকার শিখন-শেখানো কৌশল সম্পর্কে পরিপূর্ণ ধারণা প্রদর্শন করেন।

৩. প্রাথমিক এবং প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষার শিক্ষাক্রম, যোগ্যতা এবং শিখন ফল স¤পর্কে পরিপূর্ণ ধারণা প্রদর্শন করেন।

৪. শিশুদের শিখন এবং মানসিক ও শারীরিক বিকাশ স¤পর্কিত প্রধান তত্ত¡গুলো স¤পর্কে জ্ঞান ও ধারণা প্রদর্শন করতে পারেন এবং কীভাবে শিশুদেরকে ভালোভাবে সহায়তা দেয়া যায় সে স¤পর্কে বাস্তবমুখি সচেতনতা প্রদর্শন করেন।

৫. প্রত্যেক শিশুকে ভালভাবে জানেন।

৬. প্রচলিত আইন কানুন ও বিধিগত বাধ্যবাধকতা এবং এর বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের সাথে কাজ করার প্রয়োজনীয়তা স¤পর্কে উপলব্ধি প্রদর্শন করেন।

খ) পেশাগত অনুশীলন (Professional Practice)

৭. সকল শিক্ষার্থীর কার্যকর শিখন নিশ্চিত করার জন্য তাদের আগ্রহ সৃষ্টি করার,  ধরে রাখার ও সক্রিয় করার কেšশলযুক্ত পাঠ-পরিকল্পনা প্রণয়ণ করেন।

৮. সকল শিক্ষার্থী স¤পর্কে অনেক উচ্চাশা প্রদর্শন করেন এবং প্রত্যেকের চাহিদা এবং কৃষ্টিগত ঐতিহ্যকে সম্মান করেন ও মূল্য দিয়ে থাকেন।

৯. পাঠের শিখন ফল ,শিখন-শেখানো প্রক্রিয়া এবং বিষয়বস্ত  শিক্ষার্থীদের  প্রত্যেকের নিকট ¯পষ্ট হয় এমনভাবে সু¯পষ্ট নির্দেশনা প্রদান করে থাকেন।

১০. শিখন অগ্রগতি যাচাই – এর  ক্ষেত্রে প্রশ্ন করার দক্ষতা এবং আলোচনাকে সার্থকভাবে ব্যবহার করেন।

১১. সকল শিক্ষাথীর  অংশগ্রহণে সহায়ক  উদ্দেশ্যপূর্ণ, ইতিবাচক, নিরাপদ এবং সমতার ভিত্তিতে শিখণ পরিবেশ বজায় রাখেন।

১২. বিদ্যালয় এবং শিক্ষার্থীদের  চাহিদার সাথে সঙ্গতিপূর্ণ বাস্তব ইতিবাচক এবং সমতাভিত্তিক শ্রেণিকক্ষ ব্যবস্থাপনা ব্যবহার করেন।

১৩. শিক্ষাথীদের সাথে ইতিবাচক এবং সম্মানসূচক স¤পর্ক স্থাপনের জন্য বিভিন্ন ধরনের কৌশলের ব্যবহার প্রদর্শন করে থাকেন।

১৪. সমতাভিত্তিক এবং কার্যকর পরিবেশ সৃষ্টি করার জন্য যথাযথ এবং স্থানীয়ভাবে পাওয়া যায় এমন শিক্ষাউপকরণ নির্বাচন এবং ব্যবহার করেন।

১৫. শিক্ষক সহজলভ্য বিভিন্ন দ্রব্যাদি ব্যবহার করে শিক্ষা উপকরণ নিজেই তৈরি করেন।

১৬. শিখনে সহায়ক তথ্য ও প্রযুক্তিসহ অন্যান্য প্রযুক্তি (যেমন মোবাইল ফোন) যথাযথভাবে ব্যবহার করে থাকেন।

১৭. যথাযথ মূল্যায়ন কৌশল / পরিকল্পনা ব্যবহার করেন।

১৮. শিক্ষার্থীদের যথাযথ সময়ে মৌখিক এবং লিখিত ফিডব্যাক প্রদান করেন এবং প্রয়োজন অনুসারে শিক্ষার্থীকে পুনঃ ফিডব্যাক দিয়ে থাকেন।

১৯. মূল্যায়ন এবং বিভিন্ন পরীক্ষা থেকে আহরিত তথ্য বিশ্লেষণ করে প্রাপ্ত সিদ্ধান্ত/ফলাফল পরবর্তীতে পরিকল্পনা করার ক্ষেত্রে এবং শিক্ষার্থীর শিখন উন্নয়নের ক্ষেত্রে ব্যবহার করেন।

গ) পেশাগত মূল্যবোধ এবং সম্পর্ক স্থাপন (Professional Values and Relationship)

২০. প্রত্যেক শিশুর মধ্যে নিহিত সম্ভাবনার পূর্ণ মাত্রায় বিকাশের অধিকারসহ একীভূত শিক্ষা , ন্যায়পরায়ণতা এবং সমতার প্রতি অঙ্গীকার বিভিন্ন কাজের মধ্য দিয়ে প্রকাশ করেন।

২১. সমগ্র শিক্ষকতা জীবনে পেশাগত উন্নয়নের প্রতি এবং সক্রিয়ভাবে চিন্তন অনুশীলনের প্রতি অঙ্গীকার প্রদর্শন করেন।

২২. মা-বাবা, অভিভাবক এবং স্থানীয় জনগণকে সাথে নিয়ে কার্যকরভাবে বিদ্যালয়ের উন্নয়ন কর্মকান্ডে অংশগ্রহনের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে পূর্ণমাত্রায় সজাগ থাকেন।

২৩. দলীয় সদস্য হিসেবে সহকর্মীদের কাজ করে থাকেন।

Comments (4)

অনেক ভালো উদ্যোগ। সবার কাজে লাগবে আশা করি।

Thanks

অনেক ভালো এবং গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে এখানে আলোচনা করা হয়, ধন্যবাদ।

Very helpful for dped training

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!