ডিপিএড Archives - Proshikkhon

Category "ডিপিএড"

24Sep2021

Q. What is reading? Why is reading important for learning English?

Answer:

 Reading:

Reading is a cognitive process. Generally reading is defined as a process whereby as look at and understand what is written. It means understanding a text. To read a written language is called reading.

Importance of reading:

The basic points of importance of reading are as follows:

  1. Recognizing the script of language: Reading helps recognizing the script of language.
  2. A way of learning: Learning a language involves acquiring four main languages skills-listening, speaking, reading and writing. As reading is a receptive skill in learning language, the importance of reading is great. So, reading may be called as a channel of learning.
  3. Reading increases knowledge: Francis Beacon says, “Reading makes a man perfect”. Without developing the reading skills, we cannot acquire knowledge.
  4. Reading increases vocabulary: By reading, vocabulary of the learners can be increased.
  5. It helps to understand the meaning: Reading helps the readers to understand the meaning of various topics.
  6. Help in recreation: Reading helps for the recreation of the learners.
  7. Self-development and forming personality: Reading helps self-development and forms personality of the learners.
  8. Developing intelligence and creativeness: Reading helps developing intelligence and creativeness of the learners.
  9. Introduce the cultural heritage of different nations: Reading helps to introduce the cultural heritage of different nations.

Q. Write down the five stages of teaching vocabulary. How can you teach the meaning of the following words: “beautiful, hot, hair, housewife without using Bangla? Mention and describe the techniques.

Answer:

 The five stages of teaching vocabulary are-

  1. Practicing and memorizing a new word,
  2. Understanding and learning the meaning of a new word,
  3. Helping students to develop strategies for learning vocabulary,
  4. Learning the form of a new word,
  5. Recording and organizing words for long-term memory.

I can teach the meaning of the following words by using the above strategies:

  1. Beautiful: The word ‘beautiful’ denotes the attractive expression of any object. I can show the flowers, any picture or the character of a man that’s attractive in front of the students.
  2. Hot: The word “Hot” is the state of matter. It expresses the temperature of any material or object. I can show a high temperature object in front of the students.
  3. Hair: The word ‘hair’ expresses a definite part of the body of a person. I can show the picture of a person who has beautiful hair in front of the students.
  4. Housewife: The word “housewife” is a married woman who manages a family and also is a mother of children of the family. I can show a family picture in front of the students and indicate the housewife in the picture. When the students receive the words, I advise them to follow the above stages.

 In the last word, if I can present the ‘new words’ perfectly in front of the students by using the stated stages, then my application will show a good result for teaching the vocabulary.

 Q. What is loud reading and silent reading?

Answer:

Loud reading:

Loud reading requires the usages of our muscles and voice box (our larynx). This is where we read out loud with our voices.

This is typical when we’re reading so others can hear or when we’re first learning how to read.

Silent reading:

Silent reading is internal reading. There is no production of speech and no motor movement of the mouth.

Silent reading is what most of us do when we’re reading on our phones and what many use while reading a book.

Q. Identify two pros and cons each for silent reading and reading aloud.

Answer

Two pros and cons each for. Silent reading and loud reading are given below….

Pros and cons of Silent reading:

Pros: (1) Teachers have free time and can walk around the class room and help individual student as they are reading.

         (2)   It can be easier for students to concentrate. especially if they have something to do while they are reading.

Cons:  (1) Students can read at their own speed. This can be difficult for teachers managing the class.

         (2) Teacher have less opportunity to check students pronunciation.

 Pros and cons of Loud Reading :

Pros:  (1) It can help students make connections Between sounds and spelling.

         (2)   If the teachers read aloud, it can it can help students to develop reading quickly.

Cons: (1) Some students May enjoy reading aloud, others students may feel Very anxious.

        (2) Students can lose concentration when listening to others read a text.

Q. What are the advantages and disadvantages of reading aloud. ?

Answer:

The pros and cons of reading aloud are described below:

  •  It can help students make connection Between sounds and spelling (specially lower primary).
  •  If the teacher’s read aloud. It can help students to develop reading quality (skimming text).
  •  It is a chance for students to listen to English and it can help students worth pronunciation.
  •  Some students may enjoy reading aloud; others students may not feel Very anxious.
  •  Students can lose concentration when listening to others road a text.
  •  If students are reading aloud. Then others students may not hear (especially with a large group).
  •  If students reading aloud. Then only a few students get a chance to read (when it is a large group).
  •  It is often different to understand a text when you read it aloud. As you are concentrating on others things.

Q. Brierly discuss the different techniques to teach new vocabulary ?

Answer:

Teachers con use different techniques to teach vocabulary. Some important techniques have been explained bellow:

(1)    Teaching the word meaning: Teacher May write not more than 5-6 words in the blackboard before letting the students read. Then the teacher’s may use pictures or may use Bangla.

(2)    Guessing the meaning from text: Teachers may use text or situation to teach vocabulary and from this text/situation students will guess the meaning of the words.

(3)    Real objects: Some new words con be taught by showing real objects.

(4)    Pictures: A teacher can use pictures, Charts, Flashcards form the magazines or she/he can draw pictures on the blackboard.

(5)    Mime, action and gesture: some words con be taught by using mimes. actions and gestures. Here mime means doing action without talking. Teacher can mime the action of eating, Sleeping, Writing, Running etc.

(6)    Explanation: A teacher may explain the meaning of difficult world by using using simple language.

(7)     Translation: To explain abstract and difficult worlds, the teachers may give bangla meaning.

Q. Write down the ways of reading and give examples.

Answer: 

The ways of reading are given below:

  1. Reading a story or poem for pleasure
  2. Reading a newspaper review of a new film
  3. Reading an advertisement for a museum to find which days it’s open
  4. Reading a cooking recipe
  5. Reading a legal agreement

Q. Write two post reading activities for primary students.

Answer:

Two post reading activities for primary students’ are-

  1. Asking students to say the word on the card
  2. Asking students to find word in a list which is different.

How do you teach the words ‘Breakfast’ and ‘Finger’ in primary class?

Answer:

In primary classroom, teacher will say, ‘when you first take food after getting up from sleep in the morning: this food taking time is known as Breakfast’. What time do you take breakfast? What do you eat in the breakfast?

Finger: Teacher points to his or her finger to the students to understand it.

What do you mean by the sub-skills of reading?

Answer:

The activities through which; teacher develops students skills are called sub-skills of reading. Activities are:

1. Prediction: At pre reading stage, teachers can show a picture or a little and then ask the student questions about what the text will be.

2. Skimming: Skimming means reading a text quickly to get the general idea to gist about the text

3. Scanning: Scanning means reading on and listening to a text for specific information. Teacher gives some guiding questions first and asks the students to answer those questions after reading the passage

4. Intensive comprehension: The Readers try to understand both the implied and the expressive meaning in this type of reading. The teacher can check students understanding by asking question.

Q. What do you understand by skimming and scanning?

Answer:

Skimming is the action of a fast process of reading something quickly so as to note only the important Points, or quickly to get a general idea of meaning of the text even without paying attention to detail.

Scanning is reading a text quickly or sweeping the eyes over part of a text in order to find specific information.

Q. Write two post-reading activities for primary students?

Answer:

Two post-reading activities for primary students are given below:

  1. Asking students to say the word on the card.
  2. Asking students to find word in a list which is different.

Q. What is brain storming?

Answer:

Brain storming means to prepare the students to think about something so that they can give as many ideas as they can on that point.

Q. Write down the appropriate technique/techniques to teach the following Words?

  1. Short,
  2. stand- up.

Answer:

Short: is an adjective and to teach adjectives teachers need to illustrate with pictures and use the opposite word to compare.

Stand-up: is an action verb and teach action verb teachers need to show the action and give opportunities for practice to the students.

ইংরেজি পিকে বিষয়ের আরও পোস্ট দেখুন

 

23Sep2021

Q. Write definitions of controlled guided and free speaking with examples? Write down at least 4 differences between controlled and free writing activities?

Answer:

Controlled speaking:

Repetition drills is an example of controlled speaking activities. In repetition drills students imitate what the teacher says. Repetition drills can be carried out with the whole class or smaller groups of students. The teacher monitors if students are performing the repetition drills correctly with correct pronunciation and with correct intonation. For example: Teacher: Dhaka is the capital of Bangladesh. Students: Dhaka is the capital of Bangladesh.

Guided speaking:

A model dialogue is an example of guided speaking activities. A model dialogue is a conversation between two or more people in a narrative work. Here students can choose the topic based on their interests. Teacher gives an example of a model dialogue and asks students to paraphrase with their own words. Teacher guides the group if needed. For example-

Rahat      : Hi, Rafa !

Rafa       : Hi, Rahat !

Rahat     : Are you going to join the music club ?

Rafa      : I would love to! But I am not sure if I can join the music club ?

Rahat     : why ?

Rafa      : I have joined the sports club this term. And I will not be able to join both clubs at the same time.

Rahat      : ok, then ! wish you best of luck !

Rafa        : same to you !

Free speaking:

Group discussion is an example of free speaking activities. A group discussion judges the personality of a person, assesses a person’s leadership skills, problem – solving skills and presence of mind. Here teacher gives a topic or ask students  to choose one from a list of topics to discuss on. Students start discussing on a particular topic and teacher pays attention on students performance,take notes for individuals and pays attention to the students body language. A at end of the discussion teacher provides feedback to individuals.

Four differences between controlled and free writing activities are given below:

Controlled writingFree writing
Students have a lot of support with the language.Students have less support with the language.
The language is controlled by the teacher. Students have little or no choice.Some language may be controlled by the teacher. Students have some or a lot of choice over the language that they use.
The focus of the activity is on the accuracy of the use of the language. Mistakes should be corrected.The focus of the activity is on fluency, creativity and the message of the text.
Teacher can predict response of the students they will be able to produce and can understand what.Teacher can predict response of the students and can understand what that they will be able to produce.

Q. Do you think speaking skill is important? Why?

Answer:

Learning a language involves acquiring four main language skills. Among those four speaking skills is in the second position. In case of learning English, the speaking skill is important for various reasons. Some of these are:

  • To communicate with others: if anybody wants to express his/her feeling, thinking, emotion, problem, needs, he needs to speaks to others.
  • To exchange views and ideas: it is necessary to speak to exchange own views   and ideas to others.
  • To get a good job: person who have a command in spoken English can easily manage a good job.
  • For higher study:  students who go for higher studies   either inside or outside the country need to speak fluently in English
  • For communicating with foreigners: most of the time foreign business partner prefer to sit for a discussion in spite of regular correspondence. So, for smooth running of business speaking skill is important.
  • For phone calls to other countries: Now a day’s communication through phone calls is an essential part in all the fields of life. For effective communication speaking is important.
  • For travelling to other countries: While travelling in foreign countries, English speaking is must.

Q. Write about different speaking activities that you have done during school placement. How have you supported your students to develop speaking skill at that time?

Answer:

Some activities for the teachers to teach English speaking in the primary classroom are given below:

  1. Teacher speaks and all the students respond
  2. Teacher speaks and one student responds.
  3. One student speaks to another student, the second student responds. The rest of the class listens.
  4. Students speak together in pairs.
  5. Students speak together in small groups.

How I have supported my students to develop speaking skill:

  1. Repeating new words and phrases.
  2. Joining with the students to participate in rhymes, songs and stories and encourage students to repeat key words and phrases.
  3. Students can read some words and phrases aloud.
  4. Memory game (I went to market and brought….)
  5. Guessing game for example, asking questions to guess an animal that you are thinking of.
  6. Find someone whom the students can ask questions about different topics.
  7. Students pretend to be different people and act out scenes. For example, one student can be a shopkeeper and another can be a customer.

Q.  What are the problems that Bangladeshi students face in speaking English? As a teacher how can you help to overcome these problems?

Answer:

There are many problems that Bangladeshi students face in speaking English:

  1. Most of the students do not get language-based environment.
  2. Most of the time they do not get proper partner.
  3. They cannot easily remove inertia of their mind.
  4. The students are not motivated duly.
  5. Want of suitable teaching materials.
  6. Most of the students cannot use vocabulary properly.
  7. They lack confidence while speaking.

There are various ways of overcoming these problems. The following are some of the techniques that have been found There are various ways of useful:

  1. Picture interpretation: In picture interpretation, a picture may be put up on the wall and the teacher may ask several students one after another to tell the class what they can find in the picture.
  2. Improvisation: By improvisation we can hear or read instantaneous dramatization of a story. In this kind of work some characters are decided and allotted there.
  3. Hat discussion: Hat discussion is a sort of extempore speech making. A number of subjects are written on short slips of paper and these are put inside a hat.
  4. Oral question and answer group drill: The teacher may divide the class into two groups and direct one group to ask questions and another to answer.
  5. Oral question and answer chain drill: It is a method of asking question front to back. In this case, A ask B and B answers, B ask C and C answers, C ask D and D answers and so on.
  6. Exchanging personal information: This technique should be used in pairs. The teacher gives the form of personal information. The students exchange their real information but they have to follow the instruction.
  7. Oral repetition: In oral repetition practice the teacher presents a sentence and the students repeat it after him unless they learn it.

Q. Write down the importance of speaking skills?

Answer:

Some of the importance of speaking skills are as follows:

  1. To speak with foreigners.
  2. To participate in the interview.
  3. English is used in the corporate offices.
  4. For a good job in a foreign country.
  5. To be confident before others.
  6. To reply to someone speaking English.
  7. Good speaking improves other skills also.
  8. To explain anything clearly in English.
  9. To hold a good position in the work place /society.
  10. For travelling aboard comfortably.

Q. What are the productive skills?

Answer:

Both speaking and writing skills are called productive skills because they help to transfer information, reflect views, beliefs and thoughts to communicate.

Q. As a teacher how can you motivate your students to speak in English?

Answer:

As a teacher I can motivate my students to speak in English in the following way:

  1. Telling the main goal of speaking English in their real life.
  2. Telling the importance of speaking in the global world.
  3. Giving and interesting interactive level-based activity to perform in the classroom.

Q.  What do you mean by whole class work?

Answer:

When all the students work together on the same activity and pay attention to the person who is talking in open class, then we call this whole class work. This used for presentation and giving instructions to the class. For example, Eliciting, giving instruction, explanation, moving the lesson forward i.e. the teacher is going to start the next stages of the lesson establishing basic understanding of the input.

Q. Why do students need to learn stress and syllable?

Answer:

Pronunciation is not just about sounds. Speakers of English also give stress on certain syllable in words and certain words in sentence. This means they emphasize on the syllable or the word.

Q. How can teachers assess students speaking skill? Write two ways.

Ans: Speaking means saying or telling or mentioning something to someone. After listening, the learners can acquire the ability of English. There are various ways of assessing students speaking skill. Two of them are mentioned below:

  1. Showing picture: By showing picture it can be done. A picture may be put up on the wall. Then the teacher may ask several students one after another to tell what they find in the picture.
  2. Telling somebody: The teacher may give the form of personal information.

Q. What are the sub-skills of speaking?

Answer:

Both accuracy and fluency are the sub-skills of speaking. Accuracy means to be correct in terms of different language points e.g., grammatical forms, rules, pronunciation etc. Fluency means to speak or write smoothly to achieve accuracy in a target language.

Q. What do you mean by small group work?

Answer:

When students are divided into groups or pair and work on the same or different activities is known as small group work. In small groups the teacher can take part, monitor or remain apart. It increases co-operation among the students and sharing of ideas through active participation. Example: discussion, question and answer, poster making, information gap, role play, ranking etc.

ইংরেজি পিকে বিষয়ের আরও পোস্ট দেখুন

 

22Sep2021

Q. Why is listening skill important? as a teacher how will you develop your students listening skill?

Answer:

Students need to hear new words and phrases before they can say them. This will help them to pronounce the word correctly and also to remember them. Most children enjoy stories so they can be motivating.

The language is often difficult but children can follow storylines if they have pictures too. when the students listen to the Language over and over again, they easily understand it and can soon learn to say language themselves. This language is also very meaningful. Audio recordings Help students listen to different Voices and accents. They prepare then for listening to English in the future.

When teachers use English in the classroom for all purposes and not just as a subject they turn the classroom into an English environment. Students can see that English is used to communicate and not just to study. Most children enjoy songs and rhymes. Many songs and rhymes repeat to same sentence or words. When students Use English as much as possible, students have more listening and speaking practice. if students can listen to the texts as they read them, it will help them to learn how words are pronounced. It also helps the students to develop reading skills.

Q. What are the principles of listening skills?

Answer:

In this part we find some principles of teching listening skills. These are-

  • Teach listening strategis.
  • Consider how student will response.
  • Focus on process.
  • Focus of the comprehension of meaning.
  • Combine listening with other skills.
  • Integrate listening into course.
  • Use authentic language and text.
  • Include both bottom to top down listening.
  • Use techniques that are intrinsically motivating.
  • Include local cultures.

Q. What is listening? Write the characteristics of a good listener.

Answer:

Listening is one of the four basic language learning skills. It is a receptive skill. Listening is not simply hearing. Hearing with attention is listening. It is the first stage of learning a language. Without listening none can learn a language. A good listener can be a good speaker.

Characteristics of a good listener:

To speak the truth hearing without attention is not listening. To be a good listener one must have to these characteristics.  A good listener must have the following characteristics:

  • Concentrate alertly and consciously.
  • Identify the central idea of the topic.
  • Identify and relate the supporting ideas or detail of the speaker.
  • Retain the logical sequence of the topic mentally, maintain a running summary of the speaker’s points.
  • Make mental notes of agreement and disagreement.
  • Ask question for clarification.
  • Get distracted by the details.

Q. How can you organize listening activities in the classroom?

Answer:

In the classroom we have to maintain some activities to make activeness of the students. We must follow the three main stages in the classroom. The three stages are-

a) Pre listening,

b) During listening, and

c) After listening.

a) Pre listening: The teacher should briefly introduce the topic of the passage. The students will find out or answer orally of the clue given by the teacher. Such as: A picture is shown and asked some short questions to the students. Then the teacher should clearly explain what tha students have to do while they are listening. The teacher should clear it with simple English and with example. Teacher reads the first or two sentences of the passage, translate or get a student to translate the instractions into Bangla if necessary. This is the last resort. If the teacher always translates instructions into Bangla, the student will expect it and will not try to understand them in English.

b) During listening: Read through the passage once aloud. Students listen and try to complete the task. Repeat it for a second time for the students to check their answers and to listen for any information they have missed to pick out first time. If the passage is difficult for the students to understand, the teaches should read the passage a third time.

c) After listening: Check the answers to the task. Finally, the teacher should check the task completed correctly by the students. The students sometimes should compare  and check their answers in pair first. The teacher should write the answers on the board taking them from the students. It will be easier for other students  to check and correct their own answers.

Q. What do you do as an English teacher to build up your student’s listening skill? Describe the importance of listening skills.

Answer:

As a teacher I should try my level best to develop student’s listening skill. I do some listening tasks in tha classroom which the students can do as they listen. These activities are commonly known as listening tasks, listen and do, listen and draw, listen and decide true or false, listen and number, listen and write, listen and summerise etc.

Importance of listening skills: The importance of listening skills are given bellow:

  • To develop speaking skill.
  • To develop pronunciation stress and intonation.
  • To develop vocabulary.
  • To understand the speaker.
  • To draw attention of the students to new information.
  • To have a successful conversation.
  • Help students to develop relationship and confidence.
  • To enable us to speak clearly afterwards.
  • To help in the formation of language ability.
  • To take us from one stage to another.

Q. What are the basic skills of language ?

Answer :

The basics skills of language are-

  • Listening,
  • Speaking,
  • Reading, and
  • Writing.

Q. What is mean by Pre-teaching? Give an example.

Answer :

The teacher identifies the new words phrases and writes them on the board. Then he/she teaches them to the students. This is called pre-teaching. For example, it may be some difficult words, phrases e.g. straight on, turn left, famous etc.

ইংরেজি পিকে বিষয়ের আরও পোস্ট দেখুন

 

11Aug2021

Teaching Aids : Uses & Its Principles, Collection, Making and Preservation

শিক্ষোপকরণ ও এর ব্যবহার

প্রাথমিক শিক্ষায় শিক্ষোপকরণ ও এর ব্যবহার একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়৷ শিশুর সামনে বিষয়বস্তুকে সহজবোধ্য ও আকর্ষণীয় করে তোলার জন্য শিক্ষোপকরণের বিকল্প নেই৷ এর মাধ্যমে জটিল, বিমূর্ত, ও দূর্বোধ্য বিষয়গুলোকে শিক্ষার্থীদের সামনে সহজ ভাবে উপস্থাপন করা যায়৷ একজন শিক্ষকের তাই শিক্ষোপকরণ ও এর ব্যবহার সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ ধারণা থাকা প্রয়োজন৷ 

শ্রেণিতে শিক্ষাপোকরণ ব্যবহার করে কি ধরণের সুবিধা পাওয়া যায়, পাঠকে কিভাবে আরো আকর্ষণীয় করে তোলা যায়, কিভাবে পাঠকে বাস্তবভিত্তিক করে তোলা যায় কিভাবে বিমূর্ত বিষয়কে মূর্ত করে তোলা যায় এগুলো বোঝার জন্য শিক্ষাপোকরণের প্রয়োজনীয়তা জানা প্রয়োজন৷

শিক্ষা উপকরণ ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা

  • বিষয়বস্তুকে সহজ ও প্রাণবন্ত করতে;
  • শিক্ষার্থীদের মনযোগ আকর্ষণ করতে;
  • শিখনফল অর্জন নিশ্চিত করা;
  • জটিল বিষয়কে খুব সহজে উপস্থাপন করা;
  • শিখনফল দীর্ঘস্থায়ী করা;
  • শিখন ফলপ্রসূ ও স্থায়ী করতে;
  • উপকরণ ব্যবহার ও অনুশীলনের যথাযথ সুযোগ সৃষ্টি করা;
  • শিখন শেখানো কার্যক্রমে সকল শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি করা;
  • পাঠকে জীবনভিত্তিক ও বাস্তবসম্মত করা;
  • শিক্ষার্থীদের পাঠের সাথে সম্পৃক্ত করে তুলতে;
  • শিক্ষার্থীদের সৃজনশীল ও চিন্তাশীল করে তুলতে;
  • পাঠের একঘেয়েমী দূর করতে;
  • ইন্দ্রিয় শক্তির ব্যবহার বাড়াতে;
  • শ্রেণি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে।

শিক্ষা উপকরণ ব্যবহারের নীতিমালা

  • শ্রেণির আয়তন ও শিক্ষার্থীর সংখ্যার প্রতি খেয়াল রেখে উপকরণের সাইজ নির্ধারণ করা।
  • পেছনের সারি হতেও যাতে দেখা যায় তা মাথায় রেখে সকলের দৃষ্টিগ্রাহ্য ও স্পষ্টতার দিকে বিশেষ নজর দেওয়া।
  • শিক্ষার্থীর বয়স, মেধা, রূচি ও সামর্থ্যের প্রতি লক্ষ্য রাখা।
  • পাঠ্যপুস্তকের বিষয়বস্তুর সহিত মিল রাখা।
  • কাঠিন্য পরিহার করে সহজভাবে উপস্থাপন করা।
  • উপকরণকে শিক্ষাক্রমের সাথে সমন্বয় করা।
  • অকারণেই অধিক চাকচিক্য পরিহার করা।
  • উপকরণকে বোধগম্য ও অর্থপূর্ণ করা।

উপকরণ ব্যবহারের কৌশল

  • শ্রেণিতে প্রবেশ করেই উপকরণ প্রদর্শন না করা;
  • উপস্থাপন পর্যায়ে যখন প্রয়োজন তখন প্রদর্শন করা;
  • যতক্ষণ প্রয়োজন ঝুলিয়ে রাখা;
  • উপকরণ প্রদর্শনে শিশুদের সহায়তা নেওয়া;
  • উপকরণ হিসেবে শ্রেণির শিশুদের ব্যবহার করা;
  • সকলের জন্য দৃশ্যমান করে উপকরণ উপস্থাপন করা;
  • শ্রেণিকক্ষের প্রতিটি জিনিসকে প্রয়োজনে পাঠের সাথে সংশ্লিষ্ট করে উপকরণ হিসেবে ব্যবহার করা;
  • উপকরণের ওপর প্রশ্ন করা বা উপকরণ সম্পর্কে কিছু বলতে দেওয়া।

আমাদের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নানান রকমের শিক্ষোপকরণ ব্যবহার হয়৷ বিষয় ভিত্তিক নানান উপকরণ রয়েছে৷ উপকরণগুলোর ব্যবহার শৈলীর মধ্যেও অনেক পার্থক্য আছে৷ একজন শিক্ষকের এই ভিন্ন ভিন্ন উপকরণগুলোর ব্যবহার শৈলী জানা প্রয়োজন৷ এছাড়াও শ্রেণিকক্ষে উপকরণ প্রদর্শনের নির্দিষ্ট কিছু নিয়মকানুন আছে যাতে সকল শিক্ষার্থী উপকরণ ব্যবহারের সুফল পায় এবং শ্রেণি পাঠদান সার্থক হয়৷  

একটি শিক্ষোপকরণ শুধু একবারই ব্যবহার হয় না৷ কিংবা বিদ্যালয়ে শুধু একজন শিক্ষকই ব্যবহার করেন না৷ এগুলো বার বার ব্যবহার হয়৷ তাই এগুলো সঠিক ভাবে সংরক্ষণের উপায় জানা জরুরী৷ বিদ্যালয়ে বিষয় অনুযায়ী উপকরণ গুলো সাজিয়ে রাখলে খুজে পেতে সুবিধা হয়৷ ছোট ছোট উপকরণ গুলো বক্সে রাখা যেতে পারে৷ পোস্টার, ছবি, মানচিত্র ইত্যাদি দেয়ালে ঝুলিয়ে বা গোল করে পেচিয়ে রাখা যেতে পারে৷ সকল উপকরণ শুকনা স্থানে রাখা প্রয়োজন৷

শিক্ষা উপকরণ সংগ্রহ ও তৈরি

প্রতি শিক্ষাবর্ষের শুরুতে শিক্ষক স্ব-প্রণোদিত হয়ে বিষয় সংশ্লিষ্ট শিক্ষা উপকরণ তৈরি ও সংগ্রহ করবেন। একজন শিক্ষক নিজ উদ্যোগে শিক্ষা উপকরণ তৈরি ও সংগ্রহ করার জন্য যা করতে পারেন:

  • তিনি যেসকল বিষয়ে পাঠদান করেন তার একটি তালিকা প্রণয়ন করতে হবে।
  • তালিকা দেখে কোন কোন উপকরণ সহজলভ্য ও স্থানীয়ভাবে পাওয়া যাবে তা চিহ্নিত করতে হবে। এক্ষেত্রে তালিকা প্রণয়নের সময় সহজলভ্যতার বিষয়টি বিবেচনায় রাখতে হবে।
  • তালিকা অনুসারে প্রথমে নিকট পরিবেশ, স্থানীয় জনগণ ও অভিভাবকদের থেকে সহজলভ্য উপকরণ সংগ্রহ করতে হবে।
  • বিনামূল্যে উপকরণ সংগ্রহ করার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করতে হবে।
  • যে সকল উপকরণ সংগ্রহ করা হবে তার স্থায়ীত্ব বিবেচনা করে তা দীর্ঘদিন অথবা বারবার ব্যবহার করা যাবে কিনা তা মাথায় রাখতে হবে।
  • শিক্ষার্থীর বয়স, আগ্রহ, সামর্থ্য ও রুচির প্রতি খেয়াল রেখে শিক্ষা উপকরণ সংগ্রহ ও তৈরি করার পরিকল্পনা করতে হবে।
  • সম্ভাব্য উপকরণটি শিক্ষার্থীর পাঠ গ্রহণে আগ্রহ সৃষ্টির জন্য যথেষ্ট সহায়ক কি না তা বিবেচনা করতে হবে।
  • প্রয়োজনে একই উপকরণ বিভিন্ন বিষয়ে ব্যবহার করা যায় কি না তা খেয়াল রাখতে হবে।
  • শিক্ষা উপকরণের কাঠামো শ্রেণী উপযোগী কি না তা বিবেচনা করতে হবে।
  • তালিকা অনুসারে উপকরণ সংগ্রহের পাশাপাশি স্বল্পখরচে উপকরণ তৈরি করতে হবে। এক্ষেত্রে বিদ্যালয়ের সকলে মিলে পরিকল্পনা মাফিক সময় নির্ধারণ করতে হবে। প্রয়োজনে শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়েও কম খরচে ও স্বল্প পরিশ্রমে উপকরণ তৈরি করতে হবে।

শিক্ষা উপকরণ সংরক্ষণ

শিক্ষা উপকরণ সংগ্রহ ও তৈরি করার পাশাপাশি শিক্ষককে অবশ্যই একটি ব্যাপার মাথায় রাখতে হবে তা হলো যথাযথভাবে উপকরণ সংরক্ষণ করা। আমাদের দেশে উপকরণ সংরক্ষণ করে সেই উপকরণ বারবার ব্যবহার করার বিষয়ে সচেতনতার ঘাটতি লক্ষ্য করা যায়। সঠিকভাবে শিক্ষা উপকরণ সংগঠিত না করলে এবং এগুলোর যথাযথ সংরক্ষণের অভাবে উপকরণ সংগ্রহ ও তৈরি করার পুরো প্রচেষ্টাই ব্যর্থ হবে। কাজেই শিক্ষা উপকরণ সংগ্রহ ও তৈরি হয়ে গেলে এসবের যথাযথ সংরক্ষণ করা জরুরী।

শিক্ষা উপকরণ সংরক্ষণের কিছু উপায় নিচে তুলে ধরা হলো:

  • সর্বপ্রথমে একটি উপকরণ কর্ণার নির্ধারণ করতে হবে।
  • স্টক রেজিস্টার চালু করতে হবে এবং সব ঠিকঠাক আছে কিনা নিয়মিত যাচাই করতে হবে।
  • কক্ষটি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, যথাযথ আলোর ব্যবস্থা এবং অবশ্যই জীবাণুমুক্ত ও কীট পতঙ্গমুক্ত হতে হবে।
  • প্রত্যেক শ্রেণি ও বিষয়ের জন্য আলাদা আলাদা আলমারী কিংবা র‌্যাক ট্যাগ লাগিয়ে রাখতে হবে যাতে প্রয়োজনের সময় দ্রুত খুঁজে পাওয়া যায়।
  • প্রতিটি শিক্ষা উপকরণের নাম, সংগ্রহের তারিখ, স্থান, সংগ্রহকারীর নাম ইত্যাদির একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণযুক্ত লেবেল লাগিয়ে রাখলে ভালো হয়।
  • দামী ও দুর্লভ উপকরণের ক্ষেত্রে নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করতে হবে।
  • ব্যবহারের পর অবশ্যই নির্দিষ্ট স্থানে সংরক্ষণ করতে হবে।
  • পঁচনশীল উপকরণ সংরক্ষণের জন্য নির্দিষ্ট পরিমাণ পানি, ফরমালিন ইত্যাদি মিশিয়ে রাখতে হবে।
  • বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি শ্রেণীকক্ষে ব্যবহার করার পূর্বেই তা পরীক্ষা করতে হবে এবং অতি সাবধানতার সাথে ব্যবহার করতে হবে।
  • উপকরণ সংরক্ষণের জন্য নির্ধারিত কক্ষের দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট বিষয় শিক্ষককে প্রদান করলে ভালো হয়।
  • যেসব উপকরণ শ্রেণীকক্ষে ঘন ঘন ব্যবহারের প্রয়োজন হয় সেসব উপকরণ একটি নির্দিষ্ট স্থানে এবং যেসব উপকরণ ঘন ঘন ব্যবহার হয় না সেসব উপকরণ পৃথক স্থানে রাখার ব্যবস্থা করতে হবে।

শিক্ষা উপকরণ ও এর সংজ্ঞা, শ্রেণিবিভাগ ও বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এই লিংকে প্রেস করুন।

10Aug2021

Summative evaluation

সামষ্টিক মূল্যায়ন কী?

সামষ্টিক মূল্যায়ন টার্মটি চূড়ান্ত বা প্রান্তিক মূল্যায়ন নামেও পরিচিত। একটি নির্দিষ্ট কোর্স শেষে শিক্ষার্থীর শিখন অর্জন চূড়ান্তভাবে যাচাই করার উদ্দেশ্যে যে মূল্যায়ন করা হয়, তাকেই সামষ্টিক মূল্যায়ন বলা হয়। এ মূল্যায়নের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের শিখন অর্জনের তুলনামূলক পরিস্থিতি সম্পর্কে জানা যায়৷ চূড়ান্ত বা সামষ্টিক মূল্যায়ন একটি নিদিষ্ট সময়ের শেষেও নেওয়া যায়৷ কোন শিক্ষা পরিকল্পনা বা শিক্ষা কার্যক্রমের শেষে এসে যে মূল্যায়ন করা হয় তাকে সামষ্টিক মূল্যায়ন বলে।

সামষ্টিক মূল্যায়নের সংজ্ঞা

আর. এন প্যাটেলের এর মতে- “কোন কর্মকান্ড সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ ও সর্বশেষ মূল্যায়ন বা সিদ্ধান্ত কে সামষ্টিক মূল্যায়ন বলে”।

এর প্রাথমিক উদ্দেশ্যসমূহ- গ্রেড নির্ণয়, শিক্ষণ দক্ষতার বিচার, শিক্ষাক্রমের পর্যালোচনা, ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনায় উপযুক্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ, শিক্ষার্থীর পারদর্শিতা সামগ্রিকভাবে মূল্যায়ন, শিক্ষণ পদ্ধতির কার্যকারিতা যাচাই ইত্যাদি ।

সামষ্টিক বা চূড়ান্ত মূল্যায়নের বৈশিষ্ট্য

  • সামষ্টিক মূল্যায়ন আনুষ্ঠানিকভাবে করা হয়।
  • শিক্ষার্থীর শিখন অগ্রগতি সম্পর্কে সার সংক্ষেপ পাওয়া যায়।
  • একটি নির্দিষ্ট সময় যেমন : বছর, ৩ মাস, ৬ মাস ইত্যাদি শেষে এ মূল্যায়ন করা হয়৷
  • এ মূল্যায়নের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের নম্বর/মাকর্স প্রদান করে শিক্ষার্থীদের শিখনের তুলনামূলক চিত্র পাওয়া যায়৷
  • এ মূল্যায়নে শিক্ষার্থীদের শ্রেণিতে প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় স্থান অধিকার উল্লে­খ থাকে৷ কখনও গ্রেড দেওয়া হয়৷
  • এ মূল্যায়নে শিক্ষার্থীদের পাশ ও ফেল নির্ধারণ করা হয়৷ যারা পাশ করে তাদের কোন কোন ক্ষেত্রে সার্টিফিকেট ও পুরস্কার দেওয়া হয়৷
  • এ মূল্যায়নের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হল শিক্ষার্থীর কৃতিত্ব বা পারদর্শিতা মূল্যায়ন৷
  • চূড়ান্ত মূল্যায়ন অভীক্ষা প্রয়োগ করে বা প্রজেক্টের মাধ্যমে সম্পন্ন করা হয়।
  • এটি শিক্ষার্থী কর্তৃক নির্দিষ্ট কোন বিষয়ে দক্ষতা অর্জনের চূড়ান্ত অবস্থার মূল্যায়ন।

  সামষ্টিক বা চূড়ান্ত মূল্যায়নের সীমাবদ্ধতা

এ মূল্যায়ন অনেকক্ষেত্রে পাশনির্ভর পরীক্ষা হিসেবে বিবেচিত হয়৷ ধারাবাহিক মূল্যায়ন ব্যতীত এ পদ্ধতি এককভাবে শিক্ষার্থীর যোগ্যতা অর্জন সফল না হওয়ার সম্ভাবনা থাকে৷দুর্বল শিক্ষার্থীদের নিরাময়মূলক ব্যবস্থা নিয়ে শিখন ঘাটতি দূরীকরণের সুযোগ থাকে না৷এ মুল্যায়নে শিক্ষার্থীর আচরণের যে দিকগুলো আসা উচিত তা হল জ্ঞান, দক্ষতা ও অনুভূতি৷ প্রচলিত চূড়ান্ত মূল্যায়নে সাধারণত জ্ঞান অর্জনমূলক আচরণ যাচাই করা হয়৷

সামষ্টিক বা চূড়ান্ত মূল্যায়নে ব্যবহৃত উপকরণ

১. লিখিত পরীক্ষা : যেমন-  রচনামূলক ও নৈর্ব্যক্তিক অভীক্ষা।

২. মৌখিক পরীক্ষা : যেমন- ভর্তি পরীক্ষা বা এ ধরণের কোন পরীক্ষা ও পাবলিক পরীক্ষা।

৩. ব্যবহারিক পরীক্ষা

৪. এছাড়াও অ্যাসাইনমেন্ট, টার্ম পেপার বা কিউমুলেটিভ রেকর্ড সামষ্টিক মূল্যায়নে ব্যবহৃত হতে পারে।

বাংলাদেশে প্রচলিত সামষ্টিক মূল্যায়ন

সাময়িক মূল্যায়ন:

প্রথম সাময়িক ও দ্বিতীয় সাময়িক কখন সম্পন্ন হয়?

৩-৪ মাস পরে প্রথম সাময়িক মূল্যায়ন হয়, ৬-৭ মাস পরে দ্বিতীয় সাময়িক মূল্যায়ন হয়৷

বার্ষিক মূল্যায়ন:

বছরের শেষে সমগ্র বইয়ের ওপর অনুষ্ঠিত হয৷

মূল্যায়নের স্থান: নিজ বিদ্যালয়

পরিচালনার দায়িত্ব:

বিদ্যালয় পর্যায়ে পরিচালনার দায়িত্ব প্রধান শিক্ষক ও অন্যান্য শিক্ষকগণের এবং উপজেলা পর্যায়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার পরীক্ষা পরিচালনার দায়িত্ব পালন করে আসছে, স্ব-স্ব বিদ্যালয়ের বিষয় শিক্ষকগণ সামষ্টিক মূল্যায়নের জন্য প্রশ্নপত্র প্রণয়ন করে থাকেন৷

উপজেলা শিক্ষা অফিস কর্তৃক প্রণীত অভিন্ন প্রশ্ন ব্যবহার করে এ মুল্যায়ন করা হয়৷

ফলাফল:

বিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্তৃক উত্তরপত্র মূল্যায়ন এবং প্রধান শিক্ষক উত্তরপত্র যাচাই করা হয়৷

ফলাফল প্রস্তুত করে শিক্ষক ও প্রধান শিক্ষক কর্তৃক অংশীজনের উপস্থিতিতে ফলাফল ঘোষণা করা হয়৷ ফলাফলে কৃতকার্য ও অকৃতকার্য এবং শ্রেণিতে মেধা তালিকায় স্থান ঘোষণা করা হয়৷

প্রাথমিক স্তরের সমাপনী পরীক্ষা কী?   

পাঁচ বছর মেয়াদি প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্তির পরে শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক শিক্ষায় যোগ্যতা অর্জন যাচাইয়ের উদ্দেশ্যে যে পাবলিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়, তা হল সমাপনী পরীক্ষা৷

কখন ও কোথায় অনুষ্ঠিত হয়?

পঞ্চম শ্রেণির শেষে নভেম্বর/ডিসেম্বর মাসে এ পরীক্ষা উপজেলা পর্যায়ে কয়েকটি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়৷

ধারাবাহিক বা গাঠনিক মূল্যায়ন সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এই লিংকে প্রেস করুন।

মূল্যায়ন ও এর প্রকারভেদ সম্পর্কে জানতে এই লিংকে প্রেস করুন।

9Aug2021

Formative Evaluation

ধারাবাহিক বা গাঠনিক মূল্যায়ন

গাঠনিক মূল্যায়ন ধারাবাহিক মূল্যায়ন নামেও পরিচিত৷ শিখন শেখানো চলাকালে যে মূল্যায়ন করা হয় তাকে ধারাবাহিক বা গাঠনিক মূল্যায়ন বলে৷ অন্যকথায় প্রতিদিনের প্রতি পিরিয়ডের পাঠ মূল্যায়নই হল গাঠনিক মূল্যায়ন৷ গাঠনিক বা ধারাবাহিক মূল্যায়ন শিখন শেখানো কার্যক্রমের অবিচ্ছেদ্য অংশ; ধারাবাহিক মূল্যায়নের সাহায্যে যোগ্যতা অর্জন নিশ্চিতকরণ সহজ হয়৷ শিখনফল অনুযায়ী বিষয়বস্তু উস্থাপন করা হয় এবং শিখন শেখানো কার্যক্রম পরিচালনা কার্যে মূল্যায়নের মাধ্যমে শিক্ষার্থীর অর্জনের অগ্রগতি নির্ধারণ করা যায়৷ অপেক্ষাকৃত দুর্বল শিক্ষার্থীদের শিখন ঘাটতি দূর করার জন্য প্রযোজ্য নিরাময়মূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা যায়৷

ধারাবাহিক বা গাঠনিক মূল্যায়নের উদ্দেশ্য

  • পাঠের বিষয়বস্তু সম্পর্কিত শিখনফল শিক্ষার্থীরা অর্জন করতে পেরেছে কিনা তা যাচাই করা৷
  • কোন শিক্ষার্থী শিখনফল অর্জন করতে না পারলে তার কারণ অনুসন্ধান করা।
  • শিখন ব্যর্থতার কারণ জেনে সে সম্পর্কে নিরাময়মূলক ব্যবস্থা করা।
  • শিক্ষকের নিজের কাজের মূল্যায়ন করা৷
  • পুনরায় মূল্যায়ন করে শিশুর পুরোপুরি শিখন নিশ্চিত করা৷

ধারাবাহিক মূল্যায়নের সময়

ধারাবাহিক মূল্যায়ন প্রতিদিন প্রতি পাঠে করা হয়৷ প্রতি পাঠে মূল্যায়নের যে সময় তা হলো-

পাঠের শুরুতে:

  • স্বল্প পরিসরে প্রশ্ন ও উত্তরের মাধ্যমে পাঠের পূর্বজ্ঞান যাচাই করেন।
  • পাঠের শুরুতে ছবি দেখতে দিয়ে ছবিতে কী কী আছে বলে মূল্যায়ন করা যায়৷

পাঠের মাঝে:

  • পাঠের একটি ধাপ শেষ করে ছোট ছোট প্রশ্নের মাধ্যমে মূল্যায়ন করা যায়৷
  • প্রশ্ন করতে দিয়ে ও প্রশ্নের উত্তরদানের মাধ্যমে মূল্যায়ন করা যায়৷

পাঠের শেষে:

  • পাঠের সবকয়টি ধাপের বিস্তৃত মূল্যায়ন করা হয়৷
  • সাধারণত প্রশ্নের উত্তরের পরিসর একটু বড় হয়৷

গাঠনিক বা ধারাবাহিক মূল্যায়নের কৌশল

ধারবাহিক বা গাঠনিক মূল্যায়নের ক্ষেত্রে বিশেষ কতকগুলো কৌশল ব্যবহার করতে হয়। সেক্ষেত্রে বিষয়বস্তুর ধরণ অনুসারে কৌশল ও কাজের কিছু পার্থক্য থাকতে পারে। নিম্নে ধারাবাহিক মূল্যায়নের কৌশল বর্ণনা করা হলো:

কৌশলকাজ (উদাহরণ)
১. পর্যবেক্ষণবস্তু দেখা, ছবি দেখা, অক্ষর সাজিয়ে শব্দ তৈরি পরিশেষে বিভিন্ন উপাদান শ্রেণিকরণ, সক্রিয়তা৷
২. মৌখিক উত্তর বলাসংখ্যা বলতে দেওয়া, একত্রে কয়টি হয় বলতে দেওয়া, বর্ণ, শব্দ ও বাক্য পড়তে দেওয়া, ছোট প্রশ্নের উত্তর বলা (গাছের কয়টি অংশ)৷
৩. লিখতে দিয়েগুণ করা, ভাগ করা, শব্দ দিয়ে বাক্যগঠন, শূণ্যস্থান পূরণ, বর্ণ, শব্দ ও বাক্য লেখা৷
৪. কাজ করতে দিয়েবস্তু দলে সাজানো, জ্যামিতি চিত্র আঁকা, কাগজ ও মাটি দিয়ে বিভিন্ন তৈরি, আকৃতি করতে দিয়ে৷
৫. দলগত মূল্যায়নদলে কাজ দিয়ে, অন্যদলের সাথে কাজ মূলায়ন বিনিময় করে৷

একটি পাঠে যে শিখনফল থাকে তা অর্জন করার জন্য শিক্ষক শিখন শেখানো কার্যক্রম পরিচালনা করেন৷ শিক্ষক যদি ধারাবাহিক মূল্যায়নের মাধ্যমে দেখেন যে কোন শিশু সংশ্লিষ্ট শিখনফলসমূহ সর্ম্পূণ অথবা আংশিকভাবে অর্জন করতে পারেনি তখন তিনি ঐ শিখনফল অর্জনের জন্য বা শিক্ষার্থীর ঘাটতি পূরণের জন্য যে ব্যবস্থা নেন তাকে নিরাময়মূলক ব্যবস্থা বলে৷

গাঠনিক মূল্যায়নের উপকরণ

  • শ্রেণীর কাজ ;
  • ব্যবহারিক কাজ ;
  • শ্রেণীকক্ষে মৌখিক প্রশ্ন ;
  • শ্রেণীর পরীক্ষা ;
  • টার্ম পেপার ;
  • চেক লিস্ট ;
  • সাপ্তাহিক পরীক্ষা ;
  • ত্রৈমাসিক পরীক্ষা ;
  • অ্যাসাইনমেন্ট ;
  • বিতর্ক ও আলোচনা সভা ইত্যাদি।

নিরাময়মূলক ব্যবস্থার জন্য অনুসরণযোগ্য কৌশল:

নিরাময়ে সহায়তা দানকারীকখন ও কোথায়কীভাবে
শিক্ষক নিজেপাঠ চলাকালে শ্রেণিকক্ষেযখন শিক্ষার্থী শিখনফল অর্জন করতে পারছে না, তাত্ক্ষণিকভাবে তিনি সহায়তা দেবেন৷ সামান্য ইঙ্গিত দিয়ে ভুলের জায়গাটি ধরিয়ে দিয়ে বার বার অনুশীলন করতে দিয়ে  শ্রেণির বেশিরভাগ শিক্ষার্থী ব্যর্থ হলে বিষয়বস্তু পুনরায় উপস্থাপন করে৷
পারগ শিশুপাঠ চলাকালে শ্রেণিকক্ষেএকজন পারগ শিশুর পাশে একজন দুর্বল শিশুকে বসিয়ে তাকে সহায়তার জন্য পারগ শিশুকে উদ্বুদ্ধ করে৷ যাদের মূল্যায়ন হয়ে গেছে তাদের দিয়ে কয়েকজন দুর্বল শিশুকে সহায়তা দেওয়ার ব্যবস্থা করে৷ দলগত কাজ করার সময় দলের সকল সদস্যকে একই পর্যায়ে আনার অনুপ্রেরণা দিয়ে৷
শিক্ষিত মা/বাবা/অভিভাবকবাড়িতেএলাকায় শিক্ষিত অভিভাবককে নিজের ছেলে/মেয়েরে শিখন ঘাটতি পূরণ করার জন্য অনুরোধ করে৷
শিক্ষক/প্রধান শিক্ষক শ্রেণিকক্ষে ছুটির পরে/পরের দিন স্কুল শুরুর আগেছুটির পরে যে কয়জন দুর্বল শিক্ষার্থী থাকে তাদের নিয়ে বিশেষ নিরাময়ের ব্যবস্থা করে৷ বিদ্যালয়ের নিয়মিত কাজ শুরুর আগে এ কাজটি করে৷ প্রতিটি ক্ষেত্রেই নিরাময়মূলক ব্যবস্থার পরে পুনরায় মূল্যায়ন করে শিক্ষার্থীদের শিখনফল অর্জন নিশ্চিত করে৷
7Aug2021

Q. What is lesson plan? Why is a lesson plan important for teacher?

Answer:

A lesson plan is a teacher’s detailed description of the course of instruction for an individual lesson. It’s also a guide for facilitating a lesson. Here, a teacher must plan what they want to teach students, why a topic is being covered and decide how to deliver a lecture. Learning objectives, learning activities and assessments are all included in a lesson plan.

Lesson plan is important because it is effective significant components of the teaching learning process. Good lesson planning for a class will keep teacher organized and on track while teaching on. It also helps students to attain the objectives of lesson more easily. It is a step-by-step guide that provides a structure for an essential learning. Before planning a lesson it is essential to classify the learning outcomes for the class. Lesson plan also help the teacher in maintaining a standard teaching pattern and does not let the class deviate from the topic. The better prepared the teacher in planning a lesson the more likely he/she will be able manage the class well.

Q. What are the basic components of an effective lesson plan? Discuss some components of a lesson plan?

Answer:

An effective lesson plan has three basic components. Such as aim and objective of the course, teaching and learning activities and assessments to check student understanding of the topic.

There are six main components   of any successful lesson plan. These six components are given below:

Objectives: The lesson’s objectives must be clearly defined. Write what you expect your student will do by the end of the lesson. e.g. by the end of the lesson students will be able to pronounce, identify, put words, answer, use, match etc. on any verbs can be observable and measurable in the classroom.

Warm-up: Revise the previous lesson, check homework orally correct common mistakes etc.

Presentation: Present the new material using the suitable techniques, write the procedures that you will follow to explain the new material.

Practice: It is the work done by the students whether it is controlled, guided or free. Students answer some exercises based on the material presented. These exercises are often there on the set book.

Assessment: Write some sentences on the board or distribute printed papers to see whether the objectives were achieved or not and to check whether student learn or not according to the objectives.

Timing: Length of the time needed for each stage.

Q. How do lesson plans help you as a teacher?

Answer:

A lesson plan is an outline before a particular lesson which I prepare before taking the class. A lesson plan contains what will be taught, how it will be taught and with what it will be taught. Good teaching is the result of planning. Without planning, a teacher cannot teach well. A lesson plan helps me in the following ways.

  • It increases my knowledge because, I have to study a lot make a standard lesson plan.
  • It helps me to finish the class smoothly and successfully.
  • It saves my time in the class as I don’t have to think or recall anything.
  • It helps me to complete the class systematically.
  • If I forget any important thing about the lesson, the lesson plan reminds me of that.
  • A lesson plan helps me to select suitable teaching aids for my class.
  • It gives me the opportunity to select suitable teaching techniques.
  • It helps me to accomplish my class-activities without facing any unexpected situations.

Q. Why is lesson plan important for a teacher?

Answer:

A lesson plan is an outline before a particular lesson which the teacher prepares before taking the lesson. A lesson plan contains what will be taught, how it will be taught and with what it will be taught. Good teaching is the result of planning. Without planning, a teacher cannot teach well. So, planning is important.

The importance of a lesson plan are discussed below :

  • Increase knowledge: The necessity of preparing a lesson note bounds the teacher to study on his subject. He has to study the text, teacher’s guide and other reference books e.g. dictionary. He may even need to consult with his colleague “So one learns while one teaches.”
  • It reminds forgotten points: A lesson note reminds the teacher the points which he forgets during the class period.
  • It saves time: The teacher can finish his lesson in time if give the class according to well-organized lesson plan.
  • Selection of teaching aids: It helps the teacher to select suitable teaching aids for the desired effect of the lesson.
  • System: A lesson plan helps the teacher to give the class systematically.
  • Aim and objectives: A lesson plan helps to fulfill the aim and objectives of the lesson.
  • Supplementary activities: The teacher can understand which supplementary activities are suitable for a particular lesson.
  • Specific techniques: At the time of preparing the lesson plan, the teacher includes necessary teaching techniques to teach the students.
  • Possible problems: The teacher can identify the possible problem that might arise during the class and the teacher can prepare himself to cope up with the problems

In conclusion, we can say that lesson plan is important for the teacher to introduce effective teaching.

Q. What is micro-teaching? Mention the advantages of Micro-Teaching.

Answer:

The word “Micro Teaching” is broadly used in different professional training specially C.in.Ed, B.Ed. and M.Ed courses. The word “Micro” is derived from a Greek word “Mikros” and its meaning is very small.

Different educationist defines micro teaching in different ways. Some noted definition are as follows:

  • Mc Knight says, “Micro teaching is a seated down teaching encounter designed to develop new skills and refine old ones.
  • According to Allen and Eve, “Micro Teaching is a system of controlled practice that makes to concentrate on specific teaching behavior to practice teaching under controlled condition.

Advantages of Micro Teaching:

  • It is an important self-teaching technique.
  • More efficiency can be achieved within a short time.
  • As its area is small, so it is very easy to justify merits and defects of the lesson.
  • The teacher becomes self-confident.
  • It is a method of trail and errors.
  • Observation is possible.
  • The learners may be more benefited.

Q. What are the advantages of lesson plan? Write some guideline of making an effective lesson plan?

Answer:

Lesson plan is a significant element of teaching learning system.

Advantage of lesson plan:

  • It helps in achieving goals and objectives.
  • It helps to get rid of problem or avoid them.
  • It improves the habit and attitude of the students.
  • It gives a reality check of everyday performance.
  • It improves the teaching skills.
  • It makes teaching ordinary and easy.
  • It makes the teacher organized during teaching.
  • It develops self confidence in the teacher

Some guidelines are given below:

  • Identify the learning objectives.
  • Plan the specific learning activities.
  • Plan to assess student understanding.
  • Plan to sequence the lesson in an engaging and meaningful manner.
  • Create a realistic timeline.
  • Plan for a lesson closure.

Q. How does input and practice help students to complete task successfully?

Answer:

The basis of the lesson is presented in the input and the students practice to learn it. in the practice level and in the task stage. They are mainly asked to express their creative faculty on some specific point. So the learning of the input and the practice level help the students to complete the task successfully.

Q. What are the stages of an IPT linked lesson planning? What is the role of each part?

Answer:

The IPT linked lesson planning has three different but clear stages.

INPUT (or presentation) stage:

In this stage the teacher provides the text, model language or vocabulary to the students.

PRACTICE stage:

The students will do different types of activities (controlled, guided and freer) either with the help of their classmates or teachers for better understanding of the input.

TASK stage:

In this stage students get the opportunity to perform activities which could be writing, discussion or making something in order to use their new knowledge and language they have learnt in the previous stages and also the previous lessons or classes.

Q. How does micro-teaching help in the development of teaching skills?

Answer:

Micro-teaching help teachers to better understand the processes of teaching and learning and provides the opportunity to learn teaching skills, to study their own teaching, and to study the teaching of others. The trainee teacher’s micro-lesson is reviewed, discussed, analyzed, and evaluated to give a feedback.

 

31Jul2021

Inclusive education

একীভূত শিক্ষা কী?

সকল শিশুর শিখন চাহিদা পূরনের একটি টেকসই মাধ্যম হল একীভূত শিক্ষা। একীভূত শিক্ষাকে শিক্ষাব্যবস্থার সামগ্রীক উন্নয়নের একটি প্রক্রিয়া হিসেবে বিবেচনা করা হয়। অনেকেই একীভূত শিক্ষাকে প্রতিবন্ধী শিশুদের শিক্ষা গ্রহণের একটি পদ্ধতি বা উপায় মনে করে থাকেন। কিন্তু এটি একটি ভ্রান্ত ধারণা মাত্র। প্রকৃতপক্ষে একীভূত শিক্ষা এমন একটি শিক্ষা দর্শন যার নির্দিষ্ট কোনো লক্ষ্যদল নেই, যে কোনো শিশুই শিক্ষাব্যবস্থার যে কোনো প্রেক্ষিতে (যেমন: ভর্তি, অংশগ্রহণ, অর্জন ইত্যাদি) বৈষম্যের স্বীকার হলেই তারা একীভূত শিক্ষার লক্ষ্যদল হিসেবে বিবেচিত হয়।

ইউনেস্কোর (২০০৯) নির্দেশনা অনুযায়ী একীভূত শিক্ষা হলো :

[…]
15Jul2021

Video Song Amar Vayer Rokte Rangano

‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ গানটির মুলভাব

‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ গানটির শেখানোর কৌশল

আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো ভিডিও গানটির লিংক নিচে দেওয়া হলো:

6Jul2021

Morality and Etiquette

মানব সমাজে নৈতিকতা ও শিষ্টাচারের গুরুত্ব অপরিসীম। এগুলোর সহিত একজন ব্যক্তির সামাজিক মর্যাদা জড়িত থাকে অপরদিকে শিষ্টাচার না থাকলে সামাজিক অবস্থান ক্ষুন্ন হয়। আর চাকুরি ক্ষেত্রে নৈতিকতা ও শিষ্টাচার মেনে চলতে হয় অন্যথায় চাকুরিগত জটিলতায় পড়তে হয়। নিম্নে ভদ্রতা, নৈতিকতা ও শিষ্টাচার সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো:

[…]

Ad

error: Content is protected !!